শিক্ষা

বিষয় ৮: পবিত্র আত্মা

[8-16] < যিশাইয় ৬১:১-১১ > যারা এই বিশেষ কার্য্যে নিয়োজিত তারা পবিত্র আত্মা গ্রহণ করেন

< যিশাইয় ৬১:১-১১ >
“প্রভু সদাপ্রভুর আত্মা আমাতে অধিষ্ঠান করেন, কেননা নম্রগণের কাছে সুসমাচার প্রচার করিতে সদাপ্রভু আমাকে অভিষেক করিয়াছেন; তিনি আমাকে প্রেরণ করিয়াছেন, যেন আমি ভগ্নান্তঃকরণ লোকদের ক্ষত বাধিয়া দিই; যেন বন্দি লোকদের কাছে মুক্তি, ও কারাবদ্ধ লোকদের কাছে কারামোচন প্রচার করি; যেন সদা প্রভুর প্রসন্নতার বৎসর ও আমাদের ঈশ্বরের প্রতিশোধের দিন ঘোষনা করি; যেন সমস্ত শোকার্ত্তকে সান্তনা করি; যেন সিয়োনের শোকর্ত্ত লোকদিগকে বর দিই, যেন তাহাদিগকে ভস্মের পরিবর্তে শিরোভুষণ, শোকের পরিবর্তে আনন্দতৈল, অবসন্ন আত্মার পরিবর্তে প্রশংসারূপ পরিচ্ছদ দান করি; তাই তাহারা ধার্মিকতা-বৃক্ষ ও সদাপ্রভুর রোপিত তাঁহার ভূষণার্থক উদ্যান বলিয়া আখ্যাত হইবে। তাহারা পুরাকালের ধ্বংসিত স্থানসকল নির্মাণ করিবে, পূর্বকালের উৎসন্ন স্থানসকল গাঁথিয়া তুলিবে এবং ধ্বংসিত নগর, বহু পুরুষ পূর্বের উৎসন্ন স্থানসকল নূতন করিবে। আর বিদেশিগণ দাঁড়াইয়া তোমাদের পালসকল চরাইবে, বিজাতি-সন্তানেরা তোমাদের শষ্যক্ষেত্রের কৃষক ও তোমাদের দ্রাক্ষাক্ষেত্রের পাইটকারী হইবে। কিন্তু তোমরা সদাপ্রভুর যাজক বলিয়া আখ্যাত হইবে, লোকে তোমাদিগকে আমাদের পরিচারক বলিবে; তোমরা জাতিগণের ঐশ্বর্য্য ভোগ করিবে, ও তাহাদের প্রতাপে শ্লাঘা করিবে। তোমাদের লজ্জার পরিবর্তে দ্বিগুণ অংশ হইবে; অপমানের পরিবর্তে লোকেরা আপন আপন অধিকারে আনন্দরব করিবে, তজ্জন্য আপনাদের দেশে দ্বিগুণ অংশ পাইবে; তাহাদের চিরস্থায়ী আহলাদ হইবে। কেননা আমি সদাপ্রভু ন্যায়বিচার ভালবাসি, অধর্ম্মযুক্ত অপহরণ ঘৃণা করি; আর আমি সত্যে তাহাদের ক্রিয়ার ফল দিব ও তাহাদের সহিত চিরস্থায়ী এক নিয়ম করিব। আর তাহাদের বংশ জাতিগণের মধ্যে, ও তাহাদের সন্তানগণ লোকবৃন্দের মধ্যে পরিচিত হইবে, দেখিবামাত্র লোকে তাহাদিগকে চিনিবে যে তাহারা সদাপ্রভুর আশীর্বাদের বংশ। আমি সদাপ্রভুতে অতিশয় আনন্দ করিব, আমার প্রাণ আমার ঈশ্বরে উল্লাস করিবে; কেননা বর যেমন রাজকীয় সজ্জার ন্যায় শিরোভূষণ পরে, কন্যা যেমন আপন রত্নরাজি দ্বারা আপনাকে অলংকৃতা করে, তেমনি তিনি আমাকে পরিত্রাণ বস্ত্র পরাইয়াছেন, ধার্ম্মিকতা পরিচ্ছদে পরিচ্ছন্ন করিয়াছেন। বস্তুতঃ ভূমি যেমন আপন অংকুর নির্গত করে, উদ্যান যেমন আপনাতে উপ্ত বীজ অংকুরিত করে, তেমন প্রভু সদাপ্রভু সমুদয় জাতির সাক্ষাতে ধার্ম্মিকতা ও প্রশংসা অংকুরিত করিবেন।”
 
 
পবিএ আত্মা প্রাপ্তদের
কাজ কি?
সমগ্র জগতে জল ও আত্মার
সুসমাচার প্রচার করা
 
 পবিত্র আত্মা প্রাপ্ত লোকদের কাজ কি ? সমস্ত জগতে জল ও আত্মার সুসমাচার প্রচার করা। যারা জল ও আত্মায় নূতন জন্ম লাভ করে পবিত্র আত্মা গ্রহণ করেছে, ঈশ্বর তাদেরকে এই দায়িত্ব দিয়েছেন। ঈশ্বরের সাক্ষাতে যারা পাপের ক্ষমা পেয়েছে, তারা পবিত্র আত্মা পেয়েছে। তাহলে আপনি কি মনে করেন, ঈশ্বর কেন তাদের পবিত্র আত্মা দিয়েছেন ?
 তিনি তাদেরকে তাঁর সন্তান হওয়ার নিশ্চয়তা দিয়েছেন। তিনি তাদেরকে পবিত্র আত্মা দান করেন। শয়তানের উপরে বিজয়ী হতে তাদেরকে সাহায্য করেন। যারা পাপের ক্ষমা পেয়েছে এবং পবিত্র আত্মা লাভ করেছে, তাদেরকে তিনি এই ভাবে গঠন করেন :
 
 
তিনি তাদেরকে দরিদ্রদের কাছে সুসমাচার প্রচার করার জন্য তৈরী করেন
 
দরিদ্রদের জন্য সুসংবাদ বলতে কি বুঝায় ? জল ও আত্মার সুসমাচার। যাদের অন্তরে পবিত্র আত্মার বাস করে, তারা দরিদ্রদের কাছে ঈশ্বরের আদেশ অনুযায়ী সুসমাচার প্রচার করে। যারা পবিত্র আত্মা গ্রহণ করেছে, তাদের উর্দ্ধস্থ বিষয় প্রত্যাশা করা উচিত, পার্থিব বিষয় নয়।
 ঈশ্বর দরিদ্রদের কাছে জল ও আত্মার সুসমাচার দিতে বলেছেন এবং তাদের সকল পাপ ক্ষমা করেছেন। তারপরে তিনি তাদের পবিত্র আত্মা দিতে চেয়েছেন এবং তাদেরতে আত্মিক জগতে প্রবেশ করিয়েছেন। ঈশ্বর দরিদ্রদের কাছে জল ও আত্মার সুসমাচার প্রচার করতে আদেশ দিয়েছেন। তিনি তাদেরকে ঈশ্বর ও যীশুতে বিশ্বাসের বিষয় প্রচার করতে অনুপ্রাণিত করেছেন ফলতঃ ঈশ্বর দরিদ্রদের কাছে প্রচুররূপে প্রকৃত সুসমাচার প্রচার করার জন্যে আমাদেরকে পবিত্র আত্মার দিয়েছেন।
 
 
আমাদেরকে তিনি ভগ্ন আত্মাদের সুস্থ করতে পাঠিয়েছেন
 
কিভাবে ঈশ্বর আমাদের মনের আরোগ্য সাধন করেন? তিনি জল ও আত্মার সুসমাচারের দ্বারা ভগ্ন আত্মাদের আরোগ্য সাধন করেন। অনকে ভগ্ন আত্মা আছে। তারা অকর্ম্মণ্য এবং তাদের ধার্মিকতা কলুষিত। পাপের কারণে তারা হীন ও দুঃখার্ত জীবন-যাপন করে। ফলে তাদের জীবন সম্পর্কে সন্দেহ থাকার কারণে তার মাঝে মাঝে দৈহিক ও মানসিক যন্ত্রনা ভোগ করে। প্রত্যেকেই ভাল ভাবে বাঁচতে চায়, দেহে ও মনে সুস্থ থাকতে চায়, কিন্ত এত সহজে তা হয় না যেহেতু সিঁধেল চোরেরা লোকের সম্পত্তি লুণ্ঠন করে।
 একই ভাবে যাদের হৃদয়ে পাপ রয়েছে তারা সর্বক্ষণ তাদের ধার্মিকতা কলুষিত করে এবং পাপের কারণে শেষে নরকে নিক্ষিপ্ত হয়। এই কারণেই ভগ্ন আত্মাদের প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে প্রভু তাদের কাছে সুন্দর সুসমাচার প্রচার করতে বলেছেন। কোন বাক্য দ্বারা ঈশ্বর তাদেরকে সুস্থ করেন? জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার দ্বারা। তিনি ভগ্ন আত্মাদের সুস্থ করেন এবং অনন্ত জীবন দান করেন।
 
 
পাপ-দাসত্বে বন্দিদের মুক্তি ঘোষনা করেন
 
বন্দিদের তিনি মুক্ত করেন। এর অর্থ কি? এর অর্থ এই যে, জগতের সমস্ত মানুষকে ঈশ্বর পাপের বন্দি থেকে ঈশ্বর মুক্ত করেন। যারা পবিত্র আত্মা লাভ করেছে কেবলমাত্র তাদেরকে তিনি এই দায়িত্ব দিয়েছেন, এবং তারাই অন্যদেরকে পাপ থেকে মুক্ত হতে সাহায্য করেন। মানুষের একটি দেহ এবং একটি আত্মা আছে। এই দেহ ও আত্মা জীবিত এবং ব্যবস্থা ও পাপের অভিশাপ দ্বারা আবদ্ধ। যে কিছুই করতে পারে না কিন্তু পাপের বন্দি রূপে বাস করে, পাপে জন্ম গ্রহণ করে, সে পাপ ছাড়া কোন সাহায্য করতে পারে না। এরূপে সে তার সারা জীবন পূর্ব হতে নির্ধারিত পাপের বন্দি রূপে বাস করে। সে এভাবেই বাস করতে থাকে এবং শেষে ধংস হয়ে যায় ।
 এই কারণে সে অপরিহার্য্য জীবন-যাপন করে যখন তার দূর্বলতা হেতু স্বীয় দয়া উপভোগ করতে থাকে যা তাকে এই অবস্থার মধ্যে রেখেছে। যারা পূর্ব থেকে নির্ধারিত মৃত্যু ও পাপের মধ্যে আছে কিন্ত রক্ষা পেতে পারে না তাদের জন্য ঈশ্বর পবিত্র আত্মা পাঠিয়েছেন। সুতরাং তারা পাপে জীবন - যাপন কারীদের কাছে সুসমাচার প্রচার করতে পারে এবং তাদের সমস্ত পাপের বন্দিদশা থেকে মুক্তি দিতে পারে।
 
 
তিনি বিলাপ কারীদের সান্ত্বনা দেন
 
বিলাপ কারীদের ঈশ্বর কি দেন? তাদেরকে পাপ ক্ষমার সুসংবাদ দেন, যারা শোকার্ত্ত পৃথিবীর সেই সব লোকদের ঈশ্বর সান্ত্বনা দেন। তিনি মানব জাতিকে তাদের পাপ থেকে ক্ষমা করতে যীশু খ্রীষ্টকে এই জগতে পাঠিয়েছিলেন, তাঁহাতেই জগতের সমস্ত পাপ স্থানান্তরিত হল, তিনি তাঁকে যোহনের দ্বারা বাপ্তাইজিত করালেন এবং ক্রুশের ওপর মরলেন। এভাবেই ঈশ্বর আমাদের পাপ থেকে আমাদিগকে পবিত্র করলেন। এভাবে ঈশ্বর জগতের সমস্ত পাপ থেকে আমাদিগকে রক্ষা করলেন।
 যারা শোকার্ত্ত তাদের জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচারে অনুপ্রাণিত করার দ্বারা ঈশ্বর সান্ত্বনা করেন এরূপ করার দ্বারা যারা অসম্পূর্ণ বিশ্বাসে যাপন করছে তিনি তাদের পবিত্র করেন। যারা পবিত্র আত্মাতে এই সুন্দর সুসমাচার প্রচার করেছেন তিনি কেবল তাদের চালিত করেন। ভগ্নমনাদের আরোগ্য করেন এবং পাপের বন্দিদশা থেকে মুক্ত করেন।
 এই জগতে আমাদের অস্তিত্বের উদ্দেশ হল আমাদের ঈশ্বরের দ্বারা ক্ষমা পাওয়া এবং তারপর যারা পাপের দাসত্বে আছে এবং পাপ থেকে মুক্ত হয়ে সান্ত্বনা পাওয়া দরকার তাদের কাছে যেন সুন্দর সুসমাচার প্রচার করি। ঈশ্বর আমাদিগকে বলেন যে, যদিও আমাদের জীবন সংক্ষিপ্ত তথাপি সর্স্পর্ণ মূল্যহীন নয়। ফলতঃ ঈশ্বর পাপের ক্ষমার পথ প্রস্তুত করলেন এবং এই ঘটনা প্রমাণ করতে মানব জাতির জন্য অদ্ভুত আশীর্বাদ করলেন।
 যারা শোকার্ত্ত তাদের বিজয় মুকুট দিতে আমাদের ঈশ্বর অঙ্গীকার করেছেন। এর অর্থ এই যে পাপীগণ যীশুর বাপ্তিস্মের প্রতি কৃতজ্ঞ হয়ে তাদের সমস্ত পাপ থেকে ক্ষমা পেয়েছে এবং এরূপে স্বর্গ রাজ্যে প্রবেশের অধিকার পেয়েছে। যদি কেহ তার পাপ থেকে ক্ষমা পায় তাহলে তার মন সতেজ হয় এবং অতুলনীয় আশীর্বাদের মূল্যায়ন করতে পারে। আমাদের ঈশ্বর তাদেরকে বিজয় মুকুট দিবেন তিনি পাপীদের জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার দিয়েছেন এবং যারা ইহা বিশ্বাস করে তাদের তিনি তাঁর সন্তান তৈরী করেছেন। যারা এই সুন্দর সুসমাচারে বিশ্বাস করে তারা দুঃখের পরিবর্তে আনন্দ অনুভব বরে।
 সমস্ত মানুষ ক্ষণিক হাসি, কান্নার মধ্যে দিয়ে জন্ম গ্রহণ ও মৃত্যু বরণ করে। তাদের মন বিশেষ ভাবে দুঃখে পরিপূর্ণ থাকে। যাহোক, ঈশ্বর তাদের সস্মুখিন হন এবং আনন্দ ও প্রত্যাশা সৃষ্টি করেন। যারা
সুন্দর সুসমাচার বিশ্বাসের মাধ্যমে নূতন জন্ম প্রাপ্ত জীবন-যাপন করছে, তাদের নূতন কাজ আছে। তাছাড়া ঈশ্বর কি চান তারা করতে। সমর্থ হয় এবং জগতের সমস্ত পাপীদের কাছে জল ও আত্মার সুসমাচার প্রচার করে, তাদের অন্তর থেকে সমস্ত দুঃখ তাড়িয়ে দেয় এবং সমস্ত আনন্দ সুখ ভোগ করতে অনুমতি দেয়।
 যারা পাপের ক্ষমা পেয়েছে, তারা ঈশ্বরকে গৌরব প্রদান করে। তিনি ধার্মিকদের সুন্দর সুসমাচার প্রচার করতে বলেছেন। তিনি তাদেরকে প্রচার করতে বলেছেন-তিনি কে, তিনি কেমন সুসমাচার আমাদের দিয়েছেন, এবং তিনি আমাদের জন্য কেমন গৌরবময় স্বর্গরাজ্য প্রস্তুত করেছেন। আমরা,পাপের ক্ষমা প্রাপ্তরা তাঁর গৌরব দেখতে পারি। পবিত্র আত্মা লাভ করার পূর্বে যাদের জীবন দুঃখার্ত ছিল, তার এখন সুখে আনন্দ করতে পারে, পাপের দাসত্বে বন্দিরা এখন মুক্ত হয়ে মুক্তি আনন্দ লাভ করতে পারে। যারা ব্যর্থ জীবন - যাপন করছিল, তারা ধার্মিক জীবন-যাপন করতে পারে। এই গুলিতেই ঈশ্বরের গৌরব প্রতিফলিত হয়। ঈশ্বর ধার্মিকদের প্রেরণ করেন যেন তারা পুরাতন ধংসস্থান পুনঃনিমার্ণ করেন। পূর্বের জনহীন স্হানকে উত্থাপন করেন, ধংস প্রাপ্ত নগরীকে সংস্কার করেন।
 বস্তুতঃ এই জল ও আত্মার সুসমাচার আদি মন্ডলীর প্রেরিত গণ দ্বারা প্রচারিত সুসমাচার। যীশু প্রায় দু’হাজার পূর্বে এই জগতে প্রেরিত হয়েছিলেন। জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার ৩০০ খ্রীষ্টাব্দ পর্যন্ত এই পৃথিবীতে প্রচারিত হয়েছিল। বর্তমানে ধার্মিকগণের দ্বারা। প্রচারিত সুসমাচার একই পবিত্র আত্মার সুসমাচার যা ঐ সময় প্রেরিত গণ প্রচার করতেন। যাহাহউক, রোমীয় সম্রাজ্যের ৪র্থ শতকে যখন রোমে খ্রীষ্ট ধর্ম রাষ্ট্রিয় মর্যাদা লাভ করে এবং এর নাগরিকদের ধর্মীয় স্বাধীনতা প্রদান করে, তখন থেকে যীশুর বাপ্তিস্নের সুসমাচার, ক্ৰমেক্রমে কলঙ্কিত ও অন্তর্হিত হতে থাকে। এর পরে যখন খ্রীষ্ট ধর্ম প্রতিষ্ঠিত হয়ে বিস্তর সমৃদ্ধি লাভ করতে থাকে, তখন অনেকে সত্য সুসমাচার প্রচার করতে গিয়ে তা কলুষিত করে ফেলে।
 কেন তাদের ঐ বিশ্বাস ছিল, যারা সত্য খ্রীষ্ট ধর্ম প্রচার করেছিল এবং সত্য সুসমাচার পরিবর্তন করেছিল? রোমীয় সম্রাজ্যে খ্রীষ্ট ধর্ম রাষ্ট্রিয় ধর্মে পরিণত হওয়ার পর খ্রীষ্টিয়ানেরা বিভিন্ন বাধ্যবাধকতা থেকে মুক্ত হয়ে রোমীয় নাগরিকদের মত একই অধিকার ভোগ করতে থাকে।এই কারণে একমাত্র পুনরুত্থানের বিশ্বাস থেকে তাদের বিশ্বাস দূর্বল হতে থাকে। এই সময় থেকেই জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার অন্তর্হিত হতে থাকে এবং খ্রীষ্ট ধর্মকে রাষ্ট্রিয় মালিকানায় প্রতিষ্ঠিত করে বাগাড়ম্বরে পরিণত করতে থাকে।
 এই শেষ কালে খ্রীষ্টিয়ান হিসাবে ঈশ্বর আমাদেরকে জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার প্রচার করতে আদেশ করেছেন, যা দীর্ঘ কাল ধরে ধংসপ্রাপ্ত ছিল এবং এভাবেই মানব জাতিকে তাদের পাপ থেকে রক্ষা করেন। প্রেরিতদের সময়ে প্রচারিত জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার তিনি পুনর্জীবিত করবেন। প্রেরিত সময়ে সুসমাচার ছিল যীশুর বাপ্তিস্ম ও তাঁর ক্রুশীয় মৃত্যুর সুসমাচার। ধংস প্রাপ্ত নগরী সংস্কার করতে তিনি আমাদের আহবান করেছেন। তিনি আমাদের জল ও আত্মার সুন্দর সুসমাচার প্রচার করতে শিক্ষা দিয়েছেন এবং দ্রাক্ষাক্ষেত্রের কৃষক তৈরী করেছেন।
 ঈশ্বর শিষ্যদের মাধ্যমে যা করেছিলেন, সেই একই বিশেষ কাজ তিনি আমাদেরকে দিয়েছেন। তিনি আপনাকে ও আমাকে এই জল ও আত্মার প্রকৃত সুসমাচার প্রচার করতে তৈরী করেছেন। “প্রভু ঈশ্বরের আত্মা আমার উপরে আছেন, কারণ প্রভু দরিদ্রদের কাছে সুসংবাদ প্রচার করতে আমাকে অভিষিক্ত করেছেন।” ঈশ্বর তাদেরকে তৈরী করেছেন যারা সুসমাচার প্রচার করতে ইতিমধ্যে পবিত্র আত্মা লাভ করেছেন এবং আমাদেরকে পবিত্র আত্মা দিয়েছেন।
 সমস্ত দুঃখ দুর্দশা ফেলে দিয়ে ঈশ্বর আমাদেরকে ফুলের মুকুটে ভুষিত করেছেন এবং আমাদের পরম আনন্দে অনুপ্রাণিত করে প্রশংসার পরিচ্ছদে আচ্ছাদিত করেছেন। যাদের অন্তরে পবিত্র আত্মা আছেন , অন্যদের পক্ষে তাদের গ্রহণ করত এই সুন্দর সুসমাচারের বীজ বপন করেছেন। তাহলে তারা আমাদের প্রভু কর্ত্তৃক প্রদত্ত সুসমাচার গ্রহন করবে, পাপের ক্ষমা পাবে এবং অবশেষে পবিত্র আত্মা গ্রহণ করবে।
 আমরা ঈশ্বরের কার্যকারী হয়েছি। আপনি এবং আমি স্বর্গরাজ্যোর গৌরবে পবিত্র হয়েছি। যাহোক, যাদের পবিত্র আত্মা নেই। ঈশ্বর তাদেরকে অন্ধ করে তৈরী করেছেন। সুতরাং তারা এই পবিত্র সুসমাচার জানতে, এবং দেখতে এবং বুঝতে পারে না। তারা নাম মাত্র যীশুকে বিশ্বাস করতে অন্যকে তৈরী করতে পারে, কিন্ত তাদেরকে পবিত্র আত্মা গ্রহণ করার মত করে কখনো তৈরী করতে পারে না।
 যাদের মধ্যে পবিত্র আত্মা আছে, তাদের মাধ্যমে ঈশ্বর নিম্নের বিষয় গুলি করে থাকেন। দরিদ্রদের কাছে সুন্দর খবর প্রচার করতে তিনি তাদের তৈরী করেন, এবং জল ও আত্মার সুসমাচার দ্বারা ভগ্ন আত্মাদের আরোগ্য সাধন করেন। তিনি সত্য পরিত্রাণের স্বাধীনতা দ্বারা পাপের বন্দিদশা থেকে এবং শোকার্ত্তদের জল ও আত্মার সুসমাচার দ্বারা সান্ত্বনা করেন। তাদের দূর্বলতা হেতু পাপের দাসত্ব থেকে তিনি মুক্ত করে থাকেন, তাদেরকে আনন্দ ও প্রত্যাশা উপহার দেন এবং পরে স্বর্গে আরোহণ করান।
 এই অনুসারে পবিত্র আত্মা যিনি আমাদের মাঝে বাস করেন, আমাদেরকে জল ও আত্মার সুসমাচার সমস্ত লোকের কাছে প্রচার করবার মত করে তৈরী করেন। যীশু খ্রীষ্ট ঐবিষয়ে বলেন, যারা পাপের ক্ষমা পেয়েছে এবং যাদের মধ্যে পবিত্র আত্মা আছে, তারা সমস্ত পাপীদেরকে তাদের পাপ থেকে রক্ষা করবে। যারা পবিত্র আত্মার তত্বাবধানে পরিচালিত হয় ঈশ্বর তাদের ক্ষমতা প্রদান করেন। তিনি তাঁর কাজ করার মত করে সমস্ত ধার্মিক লোককে তৈরী করেন। আমরা তাঁর কার্যকারী, তাঁর দ্রাক্ষাক্ষেত্রে, ঈশ্বরের মন্ডলীতে তত্বাবধায়ক হিসাবে আমাদের নিয়োগ করেছেন। আমরা তাঁর দাস, ঈশ্বর আমাদের এই বিস্ময়কর পবিত্রতা দিয়েছেন।
 যখন আমরা মাংসের প্রতি দৃষ্টি করি, তখন আমাদের দূর্বলতা বুঝতে পারি। কিন্তু ঈশ্বর আমাদের সাথে কাজ করেন, আমরা তাঁকে বিশ্বাস করি, বিশ্বাস দ্বারা আমরা তাঁর দাস হই। আমরা বিশ্বার করি আমাদের দ্বারা ঈশ্বর অনেক মহৎ কাজ করবেন এবং আমাদের উপরে তাঁর রাজ্য বিস্তার করবেন।
 ঈশ্বর ধংসিত নগরে সুসমাচারের উৎসন্ন দূর্গ পুনঃনিমার্ণের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। তিনি প্রতিজ্ঞা করেন যে তিনি পুর্বের উৎসন্ন স্থান উত্থাপন করবেন এবং ধংস প্রাপ্ত নগর সংস্কার করবেন। আমি বিশ্বাস করি যে সমগ্র পৃথিবীতে সুসমাচারের উদ্দীপনা পুনরায় শুরু হবে।
 এই ঘটনা আমার ইচ্ছা অনুসারে হবে না। আমি বিশ্বাস করি কারণ
ঈশ্বর বলেছেন যে এরূপ ঘটবে। সমগ্র পৃথিবীতে এই সুন্দর সুসমাচার প্রচার করতে যাদের মধ্যে পবিত্র আত্মা আছে, ঈশ্বর তাদের তৈরী করেছেন। ঈশ্বর তাঁর পুত্রকে এই পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। এবং সুসমাচার পূর্ণতা সাধন করেছেন এবং আমি বিশ্বাস করি তিনি আমাদের মাধ্যমে তাঁর ইচ্ছা সাফল্যের মাধ্যমে সম্পাদন করবেন, যাদের মধ্যে পবিত্র আত্মা আছে। যারা এই সুন্দর সুসমাচারে বিশ্বাস করেন, তারা ঈশ্বরের মহিমা দেখতে পাবেন। হাল্লিলূয়ায়!